1. azqlgjgesKt@gmail.com : Stabrovpealk :
  2. test47018929@email.imailfree.cc : test47018929 :
  3. multicare.net@gmail.com : সংবাদ শরীয়তপুর :
মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪, ০৩:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বৃষ্টির জন্য ডামুড্যায় বিশেষ নামাজ আদায় শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে জমকালো আয়োজনে উদ্বোধন হলো বিজয় মঞ্চ  ককটেলের আঘাতে যুবক হ*ত্যা*র অভিযোগ, বিচারের দাবিতে পরিবারের সংবাদ সম্মেলন কবি হাসনা হেনা’র কবিতা “হতে পারবো বীর” জীবনতরী মুক্ত স্কাউট গ্রুপের স্কাউট ওন ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধুর জন্ম হয়েছিলে বলেই বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌম: এনামুল হক শামীম শরীয়তপুরে আতাউর রহমান খান ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের উদ্যোগে রিকশা ও ভ্যান বিতরণ কে এই ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির গুলফাম বকাউল সরকার গ্রামকে শহরে রূপান্তরের কাজ করছেন : এনামুল হক শামীম বিঝারী উপসী তারাপ্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয় দরিদ্র  ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তিপ্রদান

কে এই ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির গুলফাম বকাউল

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ, ২০২৪
  • ২২ বার পড়া হয়েছে

শহীদ বুদ্ধিজীবী ডাঃ হুমায়ুন কবির এর ছোট ভাই ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির গুলফাম ১৯৬৪ সালের আগস্ট মাসে শরিয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানাধীন চরভাগা ইউনিয়নের বকাউল পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতা নুরুল হক বকাউল (যিনি হক সাহেব নামেই সমধিক পরিচিত) ১৯৪৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করে সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে চাকুরিতে যোগদান করেন। মাতা বিলকিস বেগম ছিলেন গৃহিনী। সাত ভাই বোনের মধ্যে ওয়াছেল কবির গুলফাম ষষ্ঠ। বড় দুই ভাই যথাক্রমে শহীদ বুদ্ধিজীবী ডাঃ হুমায়ুন কবির, যার নামে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে শহীদ বুদ্ধিজীবী ডাঃ হুমায়ুন কবির উচ্চ বিদ্যালয়। মেজো ভাই ডা: এ এফ এম ইকবাল কবির ফয়সাল, যিনি বিশ্বব্যাংক এবং ইউনিসেফ এর সাবেক আন্তর্জাতিক কর্মকর্তা। বর্তমানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরামর্শক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।বড় তিন বোন, উম্মুল আরা শেলী, স্বামী প্রফেসর ডঃ আলী আকবর (ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়), মেজো বোন প্রফেসর মোমরাজ বেগম (সাবেক বিভাগীয় প্রধান, সমাজকর্ম বিভাগ, টি এন্ড টি কলেজ, মতিঝিল) স্বামী: প্রফেসর ডা: নাজমুল আহসান, সাবেক পরিচালক, ইন্সটিটিউট অব মেন্টাল হেলথ এন্ড রিসার্স, সেজো বোন হামদান বেগম, স্বামী-কামাল উদ্দিন আহমেদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠাতা, হাজী শরিয়ত উল্ল্যাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, সখিপুর। ছোট বোন রোমানা হক রোজি, স্বামী প্রফেসর ডা: মাহবুবুর রহমান, ভাইস চেন্সেলর, শেখ হাসিনা মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা।

ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির গুলফাম কাচিকাটা প্রাইমারী স্কুল থেকে প্রাইমারী মেধা বৃত্তি ও চরকুমারিয়া হাইস্কুল থেকে জুনিয়র বৃত্তিতে ফরিদপুর জেলার মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল এবং রাজশাহী কলেজ থেকে কৃতিত্বের সাথে এস এস সি এবং এইচ এস সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ১৯৮২ সালে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় BUET এ ভর্তি হোন। কলেজ জীবনেই ওয়াছেল কবির ছাত্র রাজনীতিতে জড়িত হোন। তারই ধারাবাহিকতায় বুয়েট ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সিনিয়র সহ-সভাপতির দ্বায়িত্ব পালন করেন। বুয়েট থেকে যন্ত্রকৌশল এ স্নাতক ডিগ্রি লাভ করে তিনি বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন এ চাকুরিতে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি ইংল্যান্ড থেকে মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করেন। শিপিং কর্পোরেশন এর চাকুরী ছেড়ে তিনি দক্ষিন কোরিয়ার হুন্দাই কোম্পানিতে তৎপরবর্তীতে ইংল্যান্ডের দিলমুন শিপিং লাইন্স এ চাকুরিতে যোগদান করেন। ২০০০ সালে চাকুরী ছেড়ে তিনি নিজস্ব ব্যবসা শুরু করেন। বর্তমানে তিনি একাধিক প্রতিষ্ঠিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর কর্নধার এবং প্রধান নির্বাহী। ওয়াছেল কবির এর স্ত্রী হামিদা বানু ফ্লোরা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখান বিভাগ থেকে স্নাতক সম্মান ডিগ্রি লাভ করেন। তাদের দু’কন্যা যথাক্রমে ইঞ্জিনিয়ার তাসফিয়া কবির এবং রোকসাদ কবির। তাশফিয়া বর্তমানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বৃত্তি নিয়ে ন্যাদারল্যান্ডস এ ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংএ পি এইচ ডি করছে। জামাতা সৈয়দ মাহির তাজওয়ার একজন ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার। নেদারল্যান্ডস এ উচ্চ শিক্ষা শেষে সেখানকার একটি আন্তর্জাতিক কোম্পানিতে চাকুরী রত আছে। ছোট কন্যা রোকসাদ কবির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এ বছর কৃতিত্বের সাথে স্নাতক সম্পন্ন করে মাস্টার্স এ অধ্যয়ন করছে।ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির তাঁর একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার পাশাপাশি একনিষ্ঠভাবে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছেন। তিনি সখিপুর থানা আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা মণ্ডলীর সন্মানিত সদস্য। বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি একইসাথে তিনি ওতপ্রোতভাবে কাজ করছেন বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও সামাজিক সংগঠনের সাথে।বৃটিশ আমলে গুলফাম ভাইয়ের দাদা এই দুর্গম চরাঞ্চলে গড়ে তুলেছিলেন জুনিয়র মাদ্রাসা ও দাতব্য চিকিৎসা কেন্দ্র। তাঁর বড় চাচা ছিলেন অবিভক্ত সখিপুর ইউনিয়ন কাউন্সিল এর দীর্ঘ সময়ের প্রেসিডেন্ট। যিনি খান সাহেব’ উপাধি লাভ করেছিলেন।এই পরিবারের অন্যতম মুরুব্বি, গুলফাম ভাইয়ের এক বড় চাচা আব্দুর রহমান বকাউল ছিলেন পাকিস্তান ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির বৃহত্তর মাদারীপুর আসনের সন্মানিত এম, এন, এ। বকাউল সাহেবের বড় ছেলে এম, আজিজুল হক ছিলেন আই, জি, পি ও ২০০৭-২০০৮ সালের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মাননীয় উপদেষ্টা।চরভাগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন যথাক্রমে তাঁর এক চাচা খবিরউদ্দিন বকাউল, চাচাতো ভাই মোয়াল্লেমুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, মনোয়ার হোসেন বাবু। আরেক চাচাতো ভাই আব্দুল কাদির বকাউল ছিলেন অবিভক্ত তারাবুনিয়ার চেয়ারম্যান এবং নুরু বকাউল ছিলেন চাঁদপুর পৌরসভার প্রভাবশালী কাউন্সিলর। এই পরিবারে আরো আছেন সরকারি, বেসরকারি, আর্মি, পুলিশের পাশাপাশি বিভিন্ন পেশায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী।শফিউল নামে একজন বলেন:আমাদের এলাকার এমন স্বনামধন্য সম্ভ্রান্ত পরিবারের মেধাবী ও কৃতি সন্তান ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির গুলফাম ভাইকে আমাদের প্রিয় ভেদরগঞ্জ উপজেলার সার্বিক উন্নয়ন ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় ‘উপজেলা চেয়ারম্যান” হিসাবে পাশে চাই। সেই লক্ষ্যে সর্বস্তরের সকলের অকুণ্ঠ সমর্থন, সহযোগিতা ও আন্তরিক দোয়া চাই।ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির গুলফাম বলেন: আমার বকাউল বংশ এবং আমার পরিবার আওয়ামীলীগের সাথে জড়িত এবং ছাত্র জীবন থেকে ছাত্র রাজনীতির সাথে ছিলাম এবং এখন পর্যন্ত আছি মৃত্যুর আগপর্যন্ত থাকবো। আমি আমার ভেদরগঞ্জ উপজেলার সাধারণ মানুষের সেবক হতে চাই আমি বিশ্বাস করি আসন্ন ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে সাধারণ মানুষ আমাকে ব্যালটের মাধ্যমে বিজয় ঘোষণা করবেন ইনশাআল্লাহ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

বৃহ শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট