1. azqlgjgesKt@gmail.com : Stabrovpealk :
  2. test47018929@email.imailfree.cc : test47018929 :
  3. multicare.net@gmail.com : সংবাদ শরীয়তপুর :
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বৃষ্টির জন্য ডামুড্যায় বিশেষ নামাজ আদায় শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে জমকালো আয়োজনে উদ্বোধন হলো বিজয় মঞ্চ  ককটেলের আঘাতে যুবক হ*ত্যা*র অভিযোগ, বিচারের দাবিতে পরিবারের সংবাদ সম্মেলন কবি হাসনা হেনা’র কবিতা “হতে পারবো বীর” জীবনতরী মুক্ত স্কাউট গ্রুপের স্কাউট ওন ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধুর জন্ম হয়েছিলে বলেই বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌম: এনামুল হক শামীম শরীয়তপুরে আতাউর রহমান খান ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের উদ্যোগে রিকশা ও ভ্যান বিতরণ কে এই ইঞ্জিনিয়ার ওয়াছেল কবির গুলফাম বকাউল সরকার গ্রামকে শহরে রূপান্তরের কাজ করছেন : এনামুল হক শামীম বিঝারী উপসী তারাপ্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয় দরিদ্র  ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তিপ্রদান

ভাই বোনদের সম্পত্তি না বুঝিয়ে দিয়ে মারধর করে বোনের হাত ভেঙ্গে দেন বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতি

  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৫ আগস্ট, ২০২৩
  • ৫০৫ বার পড়া হয়েছে
সংবাদ শরীয়তপুর ডেস্ক:শরীয়তপুর সদর উপজেলা স্বর্ণঘোষ এলাকায় গিয়াস উদ্দিন বয়াতি(৬৬)ও তার ভাই বোন দের  সম্পত্তি বুঝিয়ে না দিয়ে তাদেরকে মারধর করে বোনের হাত ভেঙ্গে দিয়েছেন বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতির  বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে।
গত ১২ আগষ্ট দুপুর ১২টার দিয়ে জাহানারা বেগম(৫৫),শামীমা আফরুজ শাহানা(৪৬) ও হোসনে আরা বিনু (৪২)তাদের বাবা ওয়াজউদ্দিন বয়াতির রেখে যাওয়া সয়-সম্পত্তি  তার বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতি কাছে ভাগ বাটোয়ারার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি গালি গালাজ শুরু করেন এবং আমার এক ছোট ভাই  বিএম নাসির উদ্দিন অনেক বছর আগে মারা গেছে  কিন্তুু আমার ভাই  বিএম নাসির উদ্দীনের এতিম ছেলেদের ও আমাদের তিন বোন কে কোনো সম্পত্তি বুঝিয়ে দিচ্ছে না  বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতি।
মামলার এজাহার সুত্রে জানা জায়, বিনীত নিবেদন এই যে, আমি জাহানারা বেগম (৫৫), স্বামী-মৃত খলিলুর রহমান খান, পিতা-মৃত ওয়াজউদ্দিন বয়াতী, মাতা-মৃত জামিলা খাতুন, সাং-স্বর্ণঘোষ, থানা। পালং, জেলা-শরীয়তপুর, থানায় হাজির হইয়া আসামী ১। গিয়াস উদ্দিন বয়াতী (৫৭), পিতা- মৃত ওয়াজউদ্দিন বয়াতী, ২। শাহিনা বেগম (৪৫), স্বামী- গিয়াসউদ্দিন বয়াতী, ৩। খাদিজা আক্তার মৌসুমী (৩২), ৪। রিফাত সুলতানা মুন (২৩), উভয় পিতা-গিয়াস উদ্দিন বয়াতী, মাতা- শাহিনা বেগম, সর্ব সাং-স্বর্ণঘোষ, থানা- পালং, জেলা-শরীয়তপুর সহ অজ্ঞাত নামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে লিখিত এজাহার করিতেছি যে, আমার ও আমার ছোট ভাই মৃত বি.এম নাসির উদ্দিন, আমার দুই বোন শামীমা আফরোজ ওরফে শাহানা বেগম, হোসনে আরা বিনু এর পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়া আসামীদের সহিত বিরোধ চলিয়া আসিতেছে। আসামীরা আমাদের পৈত্রিক ওয়ারিশের সম্পত্তি অংশ জোর পূর্বক অন্যত্র বিক্রি করিয়া দেয় আমাদেরকে অবগত না করিয়া। আমরা আমাদের ওয়ারিশের সম্পত্তি পরিমাপ করিয়া বুঝিয়া পাওয়ার জন্য আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তিতে উপস্থিত হইলে বিবাদীরা আমাদেরকে সম্পত্তি বুঝাইয়া দিবে না মর্মে বিভিন্ন ভয়ভীতি সহ হুমকি প্রদান করে। উক্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরিয়া ইং ১২/০৮/২০২৩ তারিখ দুপুর অনুমান ১২:৩০ ঘটিকার সময় পালং মডেল থানাধীন পৌরসভা ০৮নং ওয়ার্ড স্বর্ণঘোষ সাকিনস্থ স্বর্ণঘোষ দিঘীর পশ্চিম পার্শ্বে আমাদের পৈত্রিক ওয়ারিশের সম্পত্তি বুঝিয়া পাওয়ার জন্য আমি সহ আমার বোনেরা এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত হইয়া আসামীদেরকে সম্পত্তি বুঝাইয়া দিতে বলিলে আসামীদের সহিত আমাদের কথা কাটাকাটি হইলে ১নং আসামী সম্পত্তি বুঝাইয়া দিবে না মর্মে ক্ষিপ্ত হইয়া তাহার হাতে থাকা লোহার রড দিয়া আমাকে উপর্যুপরি পিটাইয়া শরীরের বিভিন্নস্থানে নীলাফুলা জখম করে। আমাকে বাঁচাইতে আমার ছোট বোন হোসনে আরা বিনু (৪৫) র আগাইয়া আসিলে ১নং আসামী আমার ছোট বোনকে হত্যার উদ্দেশ্যে উপর্যুপরি পিটাইলে হাত দিয়া ফিরাইলে ডান হাতের কবজি ও নলিতে লাগিয়া হাড়ভাঙা জখম হয়। আমার বোনকে বাঁচাইতে আমার ছোট ছেলে রেজাউল করিম ওরফে, পলাশ (৩৪) আগাইয়া আসিলে ১নং আসামী আমার ছোট ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে তাহার হাতে থাকা লোহার রড দিয়া উপর্যুপরি পিটাইয়া শরীরের বিভিন্নস্থানে নীলাফুলা জখম করে এবং ২নং আসামী আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার হাতে থাকা ধারালো ছুড়ি দিয়া বুকের বাম পার্শ্বে আঘাত করিলে কাটা রক্তাক্ত / গুরুত্বর জখম হয়। আমার ছেলে মাটিতে লুটাইয়া পরিলে সকল আসামীরা আমার ছেলে ও বোনকে হত্যার উদ্দেশ্যে পিটাইতে থাকিলে আমাদের ডাকচিৎকারে সাক্ষী সহ আশে পাশের লোকজন আগাইয়া আসিয়া আসামীদের কবল থেকে আমাদেরকে রক্ষা করে। ঘটনাস্থলে লোকজন বারতে থাকিলে আসামীরা ঘটনাস্থল থেকে চলিয়া যাওয়ার সময় বিভিন্ন ভয়ভীতি সহ প্রাণ নাশের হুমকি প্রদান করিয়া দ্রুত চলিয়া যায়। ঘটনাস্থলে আমি, আমার বোন ও ছেলে সহ অন্যান্য লোকজনের শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখিয়া দ্রুত চিকিৎসার জন্য রক্তাক্ত অবস্থায় ইজিবাইক যোগে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে আসিয়া আমার বোন এবং ছেলেকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করি এবং আমি ও অন্যান্যরা জরুরী বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহণ করি। বর্তমানে বোন এবং আমার ছেলে – শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রহিয়াছে। উক্ত বিষয়টি নিয়া গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানালে তাহারা আইনের আশ্রয় নিতে বলেন। সাক্ষীঃ ১। কায়সার আহাম্মেদ খান (২৬), পিতাঃ আব্দুল লতিফ খান, ২। নাদিমুল হাসার ওরফে রাব্বি (২২) পিতা-মৃত বি.এম.নাসির উদ্দিন বয়াতী, ৩। শামীমা আফরোজ ওরফে শাহানা বেগম (৪৫), স্বামী-মৃত আব্দুল লতিফ খান, সর্ব সাং-স্বর্ণঘোঘ, ৪। সেলিম সিকদার (৪২), পিতা-মৃত খালেক সিকদার, সাং-তুলাসার, থানাঃ পালং, জেলাঃ শরীয়তপুর সহ অনেকেই উক্ত ঘটনা সম্পর্কে জানে ও শোনে। আমি আমার বোনের এবং ছেলের চিকিৎসার কাজে ব্যস্ত থাকায় বিষয়টি নিয়া আমার আত্মীয় স্বজনের সহিত আলাপ আলোচনা করিয়া থানায় আসিয়া এজাহার দায়ের করিতে কিছুটা বিলম্ব হইলো। পালং মডেল থানা মামলা নম্বর, জি আর২১০/২৩ (পালং)
এবিষয়ে, জাহানারা বেগম বলেন, আমার বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতি আমার ছোট ভাই ও আমাদের তিন বোনদের আমার বাবার রেখে যাওয়া সম্পত্তি আমাদের বুঝিয়ে দিচ্ছে না বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতি গত ১২ আগষ্ট  আমার বাবার বাড়িতে গিয়েছি এলাকায় কিছু গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন আমার বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতি জমি বুঝিয়ে দিচ্ছে না, আমার ভাতিজারা এতিম তাদের জমিও জোরপূর্বক দখল করে খাচ্ছে।  বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতির দুই মেয়ে ছাত্রীলীগের পরিচয় দিয়ে এলাকায় বিভিন্ন লোক দিয়ে আমাদের হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। আমি পুলিশ প্রশাসন ও জেলা প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা চাচ্ছি,আমার  বাবা ওয়াজউদ্দিন বয়াতি ২০১৫ সালে সাব কবলা দলিল দেন শরীয়তপুর সদর সবা-রেজিস্ট্রার যার দলিল নম্বর  ১৪০৮/২০১৫ সালের দলিল মূলে  বিআরএস খতিয়ান – ৩৪৬ বিআরএস খতিয়ান – ৩৪৫ বিআরএস ২৪৫৪ -২৪৫৫-২৯৬ দাগে ১একর ১২ শতাংশ জমি লিখে দেন আমাদের তিন বোন কে কিন্তু সেই জমিও বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন বয়াতি জোরপূর্বক দখল করে রাখছেন। আমার বোন হোসনে আরা বিনু এখনো ঢাকায় চিকিৎসাধীন আছে। কিন্তু আমি মামলা করছি সেই মামলার আসামীদের কে গ্রেফতার করে বরং আমার ছেলেকে গ্রেফতার করেছে জামিন যোগ্য মামলায় কিন্তুু পুলিশ উল্টো রিমান্ড চাই আমার ছোট বোনের ডান হাত তিন ভাঙ্গা দিছে ছেলের বুকে দেশী রামদা দিয়ে কোপদিয়েছে গিয়াস উদ্দিন বয়াতি কিন্তু তাদের কে পুলিশ গ্রেফতার না করে জেলেহাজতে পাঠিয়েছে আমি এই ঘটনা সঠিক তদন্তের মধ্যে বিচার চাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

বৃহ শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট